Logo
নোটিশ ::
আপনার যেকোনো সৃজনশীল লেখা পাঠিয়ে দিন আমাদের ঠিকানায়।আমাদের ইমেইল: hello.atharb@gmail.com
/ গল্প
    মাগো, তোমার ছোট্ট খোকা বলছি! সাড়ে পাঁচ বছর পর মাগো আমি ছুটে এসেছি তোমার আনুুকূল্যে। তুমি কি শুনতে পারছো না মা? মা গো তুমি কি তোমার খোকার ওপর বিস্তারিত
দুপুর ২ টা । অতি বিরক্তির সঙ্গে ছাঁদে এসেছিলাম জামা শুকাতে দিতে। হঠাৎ কাছাকাছি একটি ফ্ল্যাটের দিকে চোখ পরলো। নতুন একটি পরিবার উঠেছে হয়ত, গাড়ি থেকে জিনিস পত্র নামানো হচ্ছে।
রমা দেবী বিছানায় শুয়ে আছেন। প্রচন্ড ব্যাথা হচ্ছে সারা শরীরে,মনে হচ্ছে উঠার শক্তিটুকু নেই।  শরীরটা আজকাল তেমন ভালো যাচ্ছে না রমা দেবীর। বয়স তো আর কম হলো না। সবে পঞ্চান্ন
কোনো এক কুয়াশা ভরা সকালে রিমির সাথে দেখা হয়েছিলো নীরবের। প্রথম দেখাতেই নিরবের ভালো লেগে যায় রিমিকে । তারপর জোগাড় করে রিমির ফোন নম্বর। আস্তে আস্তে বন্ধুত্ব। তারপর প্রেম। নিরব
      সাইফ কোথায় গেল জানিস? ইয়াসমিন বেগম তার একমাত্র মেয়ে আইকার কাছে জিজ্ঞাসা করলেন। আইকা মাথা নেড়ে বললো, তোমার ছেলেরা আমাকে বলে কিছুই করে না। অবশ্য বললেও আমি
৩রা মার্চ, ১৯৭১ আজ সকালে বেডরুমে আসতেই দেখি গাছে খুব সুন্দর একটি পাখি এসে বসেছে। বেডরুমের জানালা দিয়ে তা যেন খুব স্পষ্ট দেখা যাচ্ছিল। তবে পাখিটিকে বেশ অচেনা লাগছে। মনে
    গগণচুম্বী আমগাছটার শত বাধা উপেক্ষা করেও জানালা গলে আবছা জোছনা ঢুকছে। দ্বিতীয়ার ক্ষয়িষ্ণু চাঁদ একটু পরেই ডুবে যাবে। তবু প্রাণপণে তার সবটুকু আলো দেওয়ার চেষ্টা করছে। জানালার গ্রিল
দিনটি ছিল শ্রাবণ মাস। বোঝাই যাচ্ছে বর্ষার সময় ছিল এটা। জানালার পাশে বসে গোয়েন্দা কাহিনী পরছিলাম। হঠাৎ আমার দুই শ্রবণেন্দ্রিয়তে দাম্ভোলির আওয়াজ শুনতে পেলাম। জানালা দিয়া তাকাইয়া দেখলাম  মাথার উপরের
Theme Created By ThemesDealer.Com