Logo
নোটিশ ::
আপনার যেকোনো সৃজনশীল লেখা পাঠিয়ে দিন আমাদের ঠিকানায়।আমাদের ইমেইল: hello.atharb@gmail.com

বিশ্ব বাবা দিবস ইভেন্ট-২০২০

অঙ্কন ডেস্ক / ২১২ বার
আপডেট সময় : শনিবার, ১১ জুলাই, ২০২০

মীর আব্দুল আলীম, নেত্রকোনা।
সতীর্থ কেন্দুয়া জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় গ্রুপ কর্তৃক আয়োজিত বিশ্ব বাবা দিবস-২০২০ উপলক্ষে বাবাকে নিয়ে স্বরচিত কবিতা, গল্প, স্মৃতিচারণ মূলক লেখা প্রতিযোগীতায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়েছে৷বিশেষ অতিথি হিশেবে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সতীর্থ জয়হরি স্প্রাই এবং বর্তমান সাবেরুন্নেছা গার্লস হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক জনাব মোঃ মুখলেছুর রহমান বাঙালী স্যার, সতীর্থ জয়হরি স্প্রাই এবং বর্তমান জয়হরি স্প্রাইয়ের সহকারী শিক্ষক জাহাঙ্গীর ভূঞা স্যার, কবিতা ও স্মৃতিচারণ মূলক গল্প লিখন ইভেন্টের ফলাফলপ্রকাশ।আশা করি মহামারী করোনা দুর্যোগকালীন মুহূর্তেও সৃষ্টিকর্তা আপনাকে ভালোই রেখেছেন৷ করোনার এই দুঃসময়ে পুরো পৃথিবীর মানুষ ঘরবন্দী৷ একটু প্রশান্তির নিঃশ্বাস ফেলার সুযোগ নেই৷ এ বিষয়টা মাথায় রেখে ঘরবন্দী এই সময়টাকে সৃজনশীল কাজে এবং সুস্থ বিনোদনে মাতিয়ে রাখতে সতীর্থ কেন্দুয়া জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় গ্রুপ বিশ্ব বাবা দিবস-২০২০ কে কেন্দ্র করে প্রত্যেক সতীর্থ নিজ নিজ বাবার প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মান প্রদর্শনের লক্ষ্যে বাবাকে নিয়ে গল্প/স্মৃতিচারণ মূলক ছোট গল্প এবং কবিতা লেখার ইভেন্ট আয়োজন করেছিল। যা জয়হরিয়ানদের ব্যাপক উৎসাহ এবং উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে অংশগ্রহণ, এডমিন প্যানেলের সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রম এবং শ্রদ্ধেয় বিচারকগণের ধৈর্য ও বিচক্ষণতার সহিত ফলাফল নির্ধারণের মাধ্যমে ইভেন্টটি সফলভাবে শেষ হল।
ইভেন্টে সর্বমোট ৬৫ জন অংশগ্রহণ করেন। অনেকেই ভালো নম্বর পাওয়ায় খুব অল্প ব্যবধানে শ্রেষ্ঠ অংশগ্রহণকারীগণ বিজয়ী হয়েছেন। এখন সবার আকাঙ্ক্ষিত ফলাফল ঘোষণার পালা।বিশ্ব বাবা দিবস-২০২০ ইভেন্টে ফলাফল প্রকাশে তিনটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়।
(১) সাধারণ সতীর্থ ক্যাটাগরি;
(২) প্রমীলা ক্যাটাগরি; এবং
(৩) এডমিন প্যানেল ক্যাটাগরি।
আবার প্রতিযোগীতার বিষয়বস্তু ছিল ২ (দুই) প্রকারঃ
(১) কবিতা; এবং
(২) স্মৃতিচারণ মূলক ছোট গল্প।

“সতীর্থ কেন্দুয়া জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়” এর “বিশ্ব বাবা দিবস–২০২০” ইভেন্টের অংশগ্রহণকারীদের বিজয়ী স্থান নিম্নরূপঃ
(১) সাধারণ সতীর্থ ক্যাটাগরিতেঃ
স্মৃতিচারণ ছোট গল্প লিখন
১ম হয়েছেন-
শিহাব আহমেদ মাহির, ব্যাচ-২০১২ প্রাপ্তনম্বর- ৫৩.3,২য় হয়েছেন- সৈয়দ আসাদুল ব্যাচ- ২০১৯
প্রাপ্ত নম্বর- ৫১.১১৫
৩য় হয়েছেন-
বাধন আহমেদ,ব্যাচ- ২০১য
প্রাপ্ত নম্বর- ৫০.৩১
কবিতা লিখনঃ১ম হয়েছেন-মনিরুল গণি,ব্যাচ- ২০১৫,প্রাপ্ত নম্বর- ৫২.৯১
২য় হয়েছেন- মুহাম্মদ লাতিফুল ইসলাম তওসিব,ব্যাচ-২০১৯ প্রাপ্তনম্বর-৫১.২৬৫,৩য় হয়েছেন-
ডি এইচ রনি,ব্যাচ- ২০১৫
প্রাপ্ত নম্বর- ৪৯.৭৮৫
(২) প্রমীলা ক্যাটাগরিতেঃ
স্মৃতিচারণ ছোট গল্প লিখনঃ১ম হয়েছেন- মাশ ইসলাম মিমি,ব্যাচ-২০১৮,প্রাপ্ত নম্বর- ৪৫.৯৩।কবিতা লিখনঃ
১ম হয়েছেন-
অনিকা আদ্রিকা, ব্যাচ- ২০২০,প্রাপ্ত নম্বর-৪৯.০৬,(৩) এডমিন প্যানেল ক্যাটাগরিতেঃ
স্মৃতিচারণ ছোট গল্প লিখনঃ
১ম হয়েছেন- এন এম নভেল,ব্যাচ ২০১০,প্রাপ্ত নম্বর- ৫৩.৩৮৫
২য় হয়েছেন- সাজেদ আল মুনিম,ব্যাচ ২০১১,প্রাপ্ত নম্বর-৫৩.৩৫ কবিতা লিখনঃ
১ম হয়েছেন-নাদিম উল্লাহ, ব্যাচ-২০১২,প্রাপ্ত নম্বর- ৫৩.৪৩
২য় হয়েছেন- ইলিয়াস ইবনে মতিউর,ব্যাচ-২০০২
প্রাপ্ত নম্বর- ৪৮.৬৬৫
সকল বিজয়ীদের “সতীর্থ কেন্দুয়া জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়” গ্রুপের পক্ষ থেকে অভিনন্দন। বিজ্ঞ বিচারকমন্ডলীঃ
ফলাফল মূল্যায়নে কেন্দুয়া উপজেলার সর্বজন শ্রদ্ধেয়, বিশেষ ব্যাক্তিত্বের অধিকারী ও গুণীজন তথা কেন্দুয়া জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ জন সম্মানিত সতীর্থ (এর মধ্যে ২ জন বিজ্ঞ বিচারক এডমিন প্যানেলে সম্মানিত অভিভাবক হিসেবে দায়িত্বরত আছেন) বিজ্ঞ বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বিজ্ঞ বিচারকগণ সকলের কেন্দুয়া জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক কৃতি শিক্ষার্থী। বিজ্ঞ বিচারকগণঃ
সাবেরুন্নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাননীয় প্রধান শিক্ষক শ্রদ্ধেয় জনাব মুখলেছুর রহমান বাঙ্গালী,জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষক শ্রদ্ধেয় জনাব জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া,
বাংলাদেশ লোকসংস্কৃতি ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির প্রকাশনা সম্পাদক “যুগলবন্দী” কাব্যের অন্যতম লেখক, জনপ্রিয় কবি শ্রদ্ধেয় জনাব আয়েশ উদ্দীন ভুঁইয়া, জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষক শ্রদ্ধেয় জনাব তপন ভদ্র,বিশিষ্ট ব্যাংকিং ব্যাক্তিত্ব”ব্যাংকার্স ইউনিয়ন অব বাংলাদেশ” এর সম্মানিত মহাসচিব শ্রদ্ধেয় জনাব শাহরিয়ার হোসেন খান ফরহাদ,
অত্র গ্রুপের পরিচালনা পরিষদের অন্যতম ব্যাক্তিত্ব তরুন প্রজন্মের উদীয়মান লেখক শ্রদ্ধেয় জনাব ইলিয়াস ইবনে মতিউর। বিশ্ব বাবা দিবস-২০২০ ইভেন্টে স্মৃতিচারণমূলক ছোট গল্প ও কবিতা লিখনে বিজ্ঞ বিচারকগণ প্রতিটি পোস্টকে আলাদা ভাবে ১০ নম্বর এর মধ্যে মূল্যায়ন করেন। এছাড়া পরিচালনা পরিষদ দ্বারা প্রতিটি পোস্টের রিয়েক্ট-কমেন্টের সংখ্যা বিবেচনা করে নম্বর প্রদান করা হয়েছে। প্রতিটি রিয়েক্টের মান ০.০১ (অর্থাৎ ১০০ লাইকের জন্য ১ নম্বর) নম্বর। প্রতিটি কমেন্টের মান ০.০১৫ (অর্থাৎ ১০০ কমেন্টের জন্য ১.৫০ নম্বর) নম্বর। প্রতি কমেন্টদাতার শুধুমাত্র ১ টি করে কমেন্ট গণনা করা হয়েছে। ইভেন্টে সবাইকে বিজয়ী হতে হবে এমন নয়। বরং দেশের ভেতরে এবং বাহিরে থেকেও যে সতীর্থগণ মিলে একটা সুন্দর সময় আনন্দ উদযাপনে অংশগ্রহণ করতে পেরেছেন, এটাই বড় বিষয়। ভ্রাতৃত্ব বোধ এবং দৃঢ় বন্ধনের ছায়াতলে আমরা আমৃত্যু থাকতে চাই৷ সকল প্রিয় সতীর্থদের সুখে-দুঃখে পাশাপাশি থাকতে চাই৷ আমরা সতীর্থদের পরস্পরের কল্যাণে কাজ করতে দৃঢ় অঙ্গীকারবদ্ধ৷ আপনিও আপনার কোমল হৃদয়টাকে প্রসারিত করুন৷ পাশে থাকুন সকল সতীর্থদের৷
ইনশাআল্লাহ, আগামী সময়ে আমরা আরও সুন্দর এবং সৃজনশীল ইভেন্ট নিয়ে হাজির হবো আপনাদের দ্বারে৷
বিশ্ব বাবা দিবস-২০২০ ইভেন্টে সম্মানিত অংশগ্রহণকারী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের আমাদের পাশে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ ও আন্তরিক ভালোবাসা জানাই। ভালো থাকুন, পরিবার পরিজন নিয়ে। ভালো থাকুক সকল বাবা (মা) ও সন্তানেরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com