Logo
নোটিশ ::
আপনার যেকোনো সৃজনশীল লেখা পাঠিয়ে দিন আমাদের ঠিকানায়।আমাদের ইমেইল: hello.atharb@gmail.com

(আ.খ.স.ন) কবিতা প্রতিযোগিতায় বিজয়ী’ মোঃ সরোয়ার হোসেন’র কবিতা “কুহেলিকার কুহক”

অঙ্কন ডেস্ক / ১৩১ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সেদিন ছিল হেমন্ত, তবুও মনে ছিল আশা,
আজ তো বসন্ত, তবে সব হারায়ে কেন নিরাশা?
হেমন্তের মাঠে হাটিয়াছিনু একা, সহসা হয়েছিল তোমাতে দেখা,
আজও হেমন্ত, আছি আগেরই মত, হৃদয়ে তোমার প্রতিবিম্ব আঁকা।
সেদিনের হেমন্তে, নকশী কাঁথার মাঠে, হাঁটিয়াছিলে পাশে,
পায়ের নূপুর হারিয়েছিলে স্নিগ্ধ ভেজা ঘাসে।
কুড়িয়ে দিনু সে পায়ের ও নূপুর, বললে ভালবেসে,
রক্ত আলতা পায়ে হাঁটিবে বলে মনেরও মাঝে।
হাটিয়াছিনু তোমারে লয়ে এ বাংলার যত পথ,
হাজার বছর রহিবে মনে, করিলি সেদিন শপথ।
হাজার বছর রহিবে পাশে, হাটিবে হেমন্তের স্নিগ্ধ ঘাসে,
কুড়িয়ে আনিব তোর লাগিয়া একমুঠো বকুল ফুল,
ফুলের গন্ধে সুভাষিত হয়ে, বলিবে ভালবেসে।
প্রেমের সুখ তো বহে হেমন্তের দিনে,
ক্লান্ত মনে, অশ্রু ঝরে সেই বিরহের ক্ষণে।
আজির হেমন্তে আসিয়াছি আমি হেমন্তের মাঠে,
খুঁজিয়াছি তাহারে, ভরা হেমন্তে যমুনার ঘাটে।
কেন দিলি পীড়া, সহজ সরল সে মন,
কেনই বা দিলি প্রেম হেমন্তের সে ক্ষণ?
যাবি যদি যা, তবে মনেতে ক্যান দিলি প্রেমের দেখা,
সে কি সত্যি প্রেম ছিল নাকি, হেমন্তের কুহেলিকা!
ভোরের সমে, খেজুরের তলে, আসিয়া বসে কুহেলিকা,
চক্ষুর নিমিষে হারায় যবে গগনে রবির ছবি আঁকা।
হয়ত ছিলি তুই হৃদয় ও জুড়িয়া শ্রাবণের ক্ষণের মেঘ,
নতুবা হেমন্তের মাঠে, আসিয়াছিলি তুই, হেমন্তের “কুহেলিকার কুহক! “


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com