Logo
নোটিশ ::
আপনার যেকোনো সৃজনশীল লেখা পাঠিয়ে দিন আমাদের ঠিকানায়।আমাদের ইমেইল: hello.atharb@gmail.com

আজরিন জান্নাত শিখা’র একগুচ্ছ কবিতা

অঙ্কন ডেস্ক / ৩০ বার
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

ইচ্ছা
ইচ্ছেগুলো আমার স্বপ্ন রাজ্যে বন্দি
পরিবর্তন আমার স্বপ্ন দেখার পথ।
বারণ সেই,
আগের স্বপ্ন রাজ্যে প্রবেশের
সাজাতে হবে, দেখতে হবে
নতুন কোন স্বপ্ন।
রংধনুর  সাত রং দিয়ে
রাঙ্গানো আমার স্বপ্ন
কালো রঙ্গে মলিন আজ সব।
নিজের হাতে সাজানো, গুছানো
খুব যত্নে আগলে রাখা আমার স্বপ্ন
এখন কাগজে মোড়ানো সব।
যেই স্বপ্ন আমাকে
আমার পথ দেখিয়েছে,
সেই স্বপ্নই আমার সংঘ ছেড়েছে
একা করে দিয়েছে
এই স্বপ্ন রাজ্যের অতুল সমুদ্রে।

নারী
নারী আমি,
কথা বলার সুর
ফিসফিস আমার ধ্বনি,
মেয়ে বলে আজ নিয়মে বাধা
হাজারও কথা শুনি।
আমাদের ঘিরেই
এত বাধা ধরা নিয়ম
এমনটা কেন হয় !
উচ্চস্বর যে সবার সুর
আমাদের কেন নয়?

জগৎ রীতি
সাফল্যে মন্ডিত তুমি
অমূল্য তোমার মান
শিড় ধার্যের যোগ্য তুমি
কোন এক রত্নের সমমান।
চিনিবে লোকে তোমায়
দিবে সম্মান
হেলায় ফেলিবে তখন
যখন হবে শূন্যের সমান।
সাফল্যহীন ব্যাক্তি তুমি
পুতুল সমান মান
মুখ ফিরিয়ে নিবে তারাই
যারা দিয়েছিল সম্মান
বাহ্যিক সৌন্দর্যে মুগ্ধ সবাই
মহিত চমকে
কে ভাবিবে  বল
কি পেয়েছো এ জগতে।
চাকচিক্যে যারা মূল্য খুজে
উজ্জ্বলতায় তার দাম,
কমনে বুঝিবে তারা
স্বর্ণের কিরূপ মান।
আছে বলেই দিচ্ছে লোকে
অন্তে আবার কেড়ে নিচ্ছে
বিষ্মিত কেন তুমি,
জগতের এ রীতিতে।

 সমালোচনা
আমার পাগলামি ছলের,
মজাগুলোতে কেউ ভুল খুজবে।
কেউ ব্যাঙ্গ করে বলবে,
ছিঃ!!
এ কেমন ধারা কাজ
বাচ্ছা নাকি..
বড় হও নি এখনো।
কেউ বা আবার
আড় দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকবে অনেকক্ষণ।
কেউ বা মুখ কালো করে বলবে,
এমন মেয়ে জন্মায় কেন এ জগতে।
আমার আগ্রহ, উল্লাস, উচ্ছ্বাস
আর
হাজার প্রশ্নের মাঝে
জানার ইচ্ছা নিয়েও মজা করবে
অনেকে।
কিন্তু,
আমি শুনবো কেন
নিন্দুকের সমালোচনা,
থামাবো কেন,
আমার জীবন চলার গতিপথ।
সে তো নিন্দুক
সমালোচনা যার কাজ।
সে তো ব্যাস্ত তার
সমালোচনায়,
তবে
আমি কেন নয়?
আজ,
আমি ক্ষিপ্ত বা অনুতপ্ত নয়
বরং
আমি অনুপ্রাণিত
তার ব্যাঙ্গ ছলের
অনুপ্রেরণায়।

 ধর্ষণ
মেয়ে হয়ে জন্মে ছিলাম
মানুষের মতো করে,
অবহেলায় লাঞ্চিত হলাম
পশুকে যেমন করে।
ইচ্ছে ছিল ঘুরতে যাব
স্বপ্ন রাজ্যে পারি দিব,
স্বাধীন এক পাখি হব
ডানা দুটি মেলে দিব।
কিন্তু,
স্বাধীনতা আমার খর্ব হল
আলোর দিশা  লুকিয়ে গেল,
অন্ধকার আমার আপন হল।
কেন?
কি ছিল আমার অপরাধ!
মেয়ে হয়েছি বলে,
নিজের স্বাধীনতা চেয়েছি বলে
নাকি,
নিজেকে নিজের মতো সাজিয়েছি বলে।
কেউ কি বলবে
কি ছিল আমার অপরাধ।
কেন সেদিন,
সেই পিশাচগুলো আমাকে ঘিরে ধরে।
কেন,
চেয়েছিল আমর দিকে,
সেই দৃষ্টিকঠুর নয়নে।
কেনই বা ধর্ষণ করল
তাদের নিষ্ঠুর ইচ্ছা পূরণে।
সমাজ আমার নিষ্ঠুর বড়
দোষ দেয় আমার শত
জানতে চাইলে উওরে বলে,
মেয়ে হয়েছো কেন, থাক না ঘরে
পোশাক তোমার বড্ড ছোট
আপাদ মস্তক পর্দা কর।
ছলছল নয়ন আমার
নির্বাক আমার ভাষা
চিৎকার শুধু নিরবে বলে
দোষ কি ছিল, শুধু
আমার একা।
বদ্ধ ঘর যদি উপায় হবে
তবে আমি মিতু বলছি,
বাবা কেন আমার ধর্ষক হবে।
পোশাক যদি আমার  ঢাল হবে
তবে আমি খাদিজা বলছি,
কাল বোরকা
হাতে পায়ের মোজা
কেন ঢাল হল না সেদিন,
বাঁচাতে আমায়।
অপরাধ যদি শুধু
আমারই একা
তবে
কোন অপরাধে অপরাধী
চার বছরের সেই ছোট্ট আমি
কোন কারণে  ধর্ষিত আমি।
জন্ম আমার, মৃত্যু আমার
জীবন চলার পথও আমার
পরিস্থিতি সব কেড়ে নিল
বলতে পার দোষ কি আমার?


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com