Logo
নোটিশ ::
আপনার যেকোনো সৃজনশীল লেখা পাঠিয়ে দিন আমাদের ঠিকানায়।আমাদের ইমেইল: hello.atharb@gmail.com

গল্প: উপহারটি মূল্যবান ছিল ─ মো.আজিজুল ইসলাম (পর্ব: ০১)

অঙ্কন ডেস্ক / ৭৬ বার
আপডেট সময় : সোমবার, ১৭ আগস্ট, ২০২০

তুমি আমার সাথে দেখা করবে কি না?(মারুফা)
না আমি দেখা করতে পারবো না।(রাসেল)
কেন পারবে না বলো?(মারুফা)
আমি দেখতে বাজে যদি দেখা করি তাহলে হয়তো তুমি আর কথা বলবে না।আর দেখা করার জন্য তো কিছু উপহার দিতে হবে। সেটা দেওয়ার মতো কোনো টাকা আমার কাছে নেই।
মারুফা:আমি তোমার চেহারা দেখে না প্রেম করেছি না টাকা পঁয়সা দেখে।
রাসেল:না আমি খালি হাতে তোমার সামনে যেতে পারব না।
মারুফা:বল্লাম না কিছুই আনতে হবে না। আমি সুধু তোমাকে কাছে থেকে একটাবার দেখব।
রাসেল :আমাকে দেখতে চাও?
মারুফা:হ্যাঁ।
রাসেল:আমার ফটো পাঠাই তুমি দেখে নাও।
মারুফা:তুমি ফটো ওঠোনা। আর আমার জন্য উঠতেও হবে না। তুমি দেখা করবে ওকে(হয়তো একটু রেগেই বলল)
রাসেল:যেতে পারি কিন্তু একটা শর্তে।
মারুফা:কোনো শর্ত মর্ত বুঝি না কাল দেখা করবে(রাগেরর ইমুজি দিয়ে)
রাসেল:ওকে আসবো। বলো কখন কোথায় আসতে হবে?
মারুফা:তুমি বলো কোথায় দেখা করবে?
রাসেল:উল্লাহপাড়া রেল স্টশনে।
মারুফা:ওকে কাল তাহলে দেখা হচ্ছে।কিন্তু আমাকে দেখে চিনবা কেমন করে?আমার একটা ফটো পাঠাই দেখে রাখ।
রাসেল:আমার এমবি নাই ফটো দেখতে পারব না।
মারুফা:তাহলে তুমি নীল কিছু পরে আসবে।আর আমি  নীল শাড়ী পড়ে আসবো।
রাসেল:ওকে। এখন আমি ঘুমাব।
মারুফা:ওকে আমিও ঘুমাব ভালো থেকো।
তার পরে নেট কালেকশন অফ করে রাসেল চিন্তা করছে।রাসেলের কাছে কোনো টাকা নেই। আর থাকবেই কেমন করে রাসেলের জন্ম যে গরিব পরিবারে।বাবা যে টাকা ইনকাম করেন সে টাকা সংসারেই খরচ হয়ে যায়। রাসেল সারা রাত ঘুমাতে পারেনি সুধু এটাই ভেবেছে কাল দেখা করতে যাবো টাকা কোথায় পাবো?।

রাসেল আর মারুফার পরিচয় ফেজবুকে।একটা গ্রুপে ঝগড়া হয় তাদের তার পর মারুফা রাসেলকে খুব বকে কিন্তু রাসেল কোন জবাব না দিয়ে তার কমেন্টে একটা লাইক দেয়।কারণ রাসেল ছিল খুব ভালো মনের মানুষ আর বেশ ধর্মিক।রাসেলের কোনো জবাব না পেয়ে মারুফা রাসেলকে ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট পাঠায়।রাসেল এক্সেপ্ট করার সাথে সাথে মেসেজ আসে–প্লিজ আমাকে ক্ষমা করেদদিন।রাসেল মেসেজটার উত্তর না দিয়েই নামাজে চলে যায়।নামাজ থেকে আসার পরে দেখে  আরো অনেক গুলো মেসেজ করেছে।প্রথমত রাসেল চিনবার পারে নাই যে এটাই সেই আয়ডি।

রাসেল মেসেজের রিপ্লাই দেয় কে আপনি?
মারুফা:পরে বলতেছি আগে বলেন আপনি এতক্ষণ রিপ্লাই দেননি কেন?
রাসেল:আমি নামাজে গিয়েছিলাম তাই রিপ্লাই দিতে পারিনি।এবার বলেন ক্ষমা চাচ্ছেন কেন?
মারুফা:কমেন্টে আপনাকে বকার জন্য।আসলে রাগ হলে আমি নিজেকে কন্টল করতে পারিনা।
রাসেল:আমি কিছুই মনে করিনি।
মারুফা:আমরা কি বন্ধু হতে পারি?
রাসেল:হ্যাঁ হতেই পারি।

তারপরে বন্ধু থেকে এক সময় দুজন দুজনকে ভালবেসে ফেলে কিন্তু এখনো কেউ কাউকে দেখেনি।রাত পোহালে তাঁরা দেখা করবে।
সকালে ঘুম থেকে উঠে তাঁর নীল টি শার্ট পরে। তাঁর ছোট ছোট মায়ের কাছ থেকে কিছু টাকা ধার নেয়।অতঃপর তাঁদের দুজনেে দেখা হয়।
রাসেল মারুফাকে দেখে এক নজরে অনেকক্ষণ তাকিয়ে ছিল।
মারুফা:আমাকে এমন করে দেখতেছেন কেন?
রাসেল:না মানে মানুষ এত সুন্দর হতে পারে!
মারুফা:পাগল একটা,আমি তাহলে কি?
রাসেল:তুমি তো পরী।(হেসে)
মারুফা:এই নিন। এটা কাছে রাখুন।আর এটা বাড়িতে যেয়ে খুলবেন(একটা বড় ব্যাগ দিয়ে)
রাসেল নিতে চায়নি তাঁকে জোর করে দিয়ে দেয় মারুফা।

দুই জন বেশ কিছুক্ষণ এক সাথে থাকার পরে মারুফা বলল আমাকে বাসায় যেতে হবে।
রাসেল মাথা নাড়িয়ে বলল যাও তাহলে।
মারুফা:বাসায় চলে যায়।আর রাসেল তাঁদের বাড়িতে চলে আসে।
রাসেল বাড়ী এসে ব্যাগটা খুলে দেখে একটা পত্র সহ কিছু পোষাক আর টাকা।পত্রে লেখা ঈদের জন্য পোষাক আর টাকা তোমার ফোনের এমবি কেনার জন্য।

রাসেলের ফোনের ব্যালেন্সে তিন টাকা কয়েক পঁয়সা ছিল তাই মারুফাকে কল করে।
মারুফা:পছন্দ হয়েছে কি?
রাসেল:হ্যাঁ।কিন্তু এগুলো দেওয়ার কি কোন দরকার ছিল?
মারুফা:আমার ইচ্ছে হয়েছে তাই দিয়েছি।
মিষ্টি মিষ্টি ভালবাসার খেলা খেলতে খেলতে কেটে যায় দুইটা বসর।রাসেল এখন মারুফাকে ছারা আর কিছু ভাবতে পারে না।কিন্তু মারুফা আর আগের মত ভালবাসে না।


এ জাতীয় আরো খবর
Theme Created By ThemesDealer.Com